Latest News

Students Sketch Mega Science Projects on Canvas What's New Life গোলাড সুশীলা হাইস্কুলের উদ্যোগে বিদ্যাসাগরের জন্ম দ্বি-শতবর্ষ স্মরণে সাইকেল যাত্রা What's New Life আসামে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ What's New Life মাঠে ফিরতে আরও সময় লাগবে শিখর ধাওয়ানের What's New Life জেনেভায় হানিমুনে সৃজিত-মিথিলা What's New Life দ্বিতীয় দিনে পড়লো ময়মনসিংহের পরিবহন ধর্মঘট What's New Life কন্যা সন্তানের বাবা হলেন কপিল What's New Life হোটেল রুমে অবিবাহিত দম্পতিরা থাকা কোনও অপরাধ নয় : মাদ্রাজ হাইকোর্ট What's New Life নিউজিল্যান্ডে অগ্ন্যুৎপাতে এখনো পর্যন্ত ১৩ জন নিহত What's New Life শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করে সালমান খান What's New Life

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত ইডেন গার্ডেন্স

কলকাতায় শুরু হবে শুক্রবার থেকে ঐতিহাসিক দিবারাত্রি গোলাপি বল টেস্ট। গোলাপি বলের এ টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে গোলাপি সাজে সেজেছে ইডেন গার্ডেন্স। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও স্বাগত জানাতে প্রস্তুত তিলোত্তমা।​ রাতের ইডেন গার্ডেন্স শুধুই মাঠ নয় এযেন গোলাপি রাজ্য! পুরো ইডেন সেজে উঠেছে গোলাপি রঙে। প্রস্তুতি পূর্ণ করতে শেষ মুহূর্ত আয়োজকরা ব্যস্তা বেড়েছে। অন্য সবার চেয় বেশি ব্যস্ত ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের সম্পাদক অভিষেক ডালমিয়াকেও। দিবারাত্রি টেস্ট নিয়ে ভারত-বাংলাদেশ দুই দেশের দর্শকদেরই সীমাহীন আগ্রহ। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে টেস্টের প্রথম চার দিনের টিকিট। বাংলাদেশ থেকেও আসছেন অনেক দর্শক। আলোচিত দিবারাত্রির টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে নানা রকমের আয়োজন করছে সিএবি।
এ ব্যাপারে গণমাধ্যমকে অভিষেক ডালমিয়া বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য ঐতিহাসিক এক উপলক্ষ। ঐতিহাসিক টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে যা যা সম্ভব সবই করেছি, করছি। টেস্ট শুরু হওয়ার আগে-পরে, লাঞ্চ কিংবা চা বিরতিতে নানা কর্মসূচি রাখা হয়েছে। একটার পর একটা হতে থাকবে। যেহেতু গোলাপি বলে খেলা হবে, পুরো শহর, পুরো ইডেন গার্ডেন্সে গোলাপি আবহ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। চার দিক এখন আলোকিত হচ্ছে গোলাপি আলোয়। সংস্কৃতিই হচ্ছে বাংলার মূল। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকছে। অতিথি আপ্যায়নে কোনো কমতি রাখা হচ্ছে না।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত ইডেন গার্ডেন্স

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য ভীষণ মূল্যবান এক স্মারক তৈরি করেছেন আয়োজকেরা। সিএবির সিএবির যুগ্ম সম্পাদক দেবব্রত দাস বলেন, ‘এটা তো কেবল একটা খেলাই নয়, দুই বাংলার গোলাপি বন্ধন! স্মারক উপহার হিসেবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে শাল উপহার দেওয়া হবে। এই টেস্ট উপলক্ষে তৈরি সোনার মুদ্রা দেওয়া হবে। রুপোর বলের ওপর আমেরিকান হিরা দিয়ে তৈরি গোলাপি বলের আকারে একটা বিশেষ স্মারক দেওয়া হবে। রুপোর লোগোর ওপরে জারকন পাথরে তৈরি স্মারকটি হবে খুবই আকর্ষণীয়।’
যেকোনো আতিথেয়তাটায় ভোজন পর্বটা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। দেবব্রত দাস বলেন, ‘মাংস তো থাকছেই। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী যে সব খাবার পছন্দ করেন সবই প্রায় থাকছে। বাংলা খাবারের মধ্যে কালি ডাল, চাপাটি, রাবড়ি, লাল চালের পায়েশ ইত্যাদি রাখা হয়েছে। বাংলাদেশের তরফ থেকেও কিছু খাবারের তালিকা এসেছে। যেমন—মিষ্টি, মাছের কিছু পদ। মাছের মধ্যে ইলিশ রাখা সম্ভব হচ্ছে না। রাখা উচিতও না। যে ইলিশটা ওপারের বাংলায় মেলে, এপারে সেটা পাওয়া যায় না। এখানকার ইলিশ অতটা ভালোও হবে না। বাকি যেসব মাছ যেমনঃ ভেটকি মাছে পাতুড়ি, সবজির মধ্যে ফুলকপির রোস্ট, অন্যান্য তরকারিসহ প্রধানমন্ত্রীর মনের মতো খাবারের প্রায় সব ব্যবস্থাই আমরা করছি। বাংলার কৃষ্টি-সংস্কৃতি প্রাধান্য দিয়েই সব খাবারের আয়োজন করা হচ্ছে।’
ইডেনে দিবারাত্রির টেস্ট আকর্ষণীয় করে তুলতে আয়োজকদের চেষ্টার কমতি নেই। কিন্তু সব উদ্যোগ তখনই পূর্ণতা পাবে, যখন মাঠের খেলাটা হবে জমজমাট। আয়োজকেরা আশাবাদী, দুই দলই উপহার দেবে রোমাঞ্চকর এক ম্যাচ। গোলাপি বলের টেস্ট উপলক্ষে সিএবির যেসব আয়োজন রেখেছে তা হলো —ঢাউস গোলাপি রাঙা হিলিয়াম বেলুন ওড়ানো হয়েছে ইডেনে,​ টেস্ট উপলক্ষ্যে থাকছে বিশেষ দুটি মাসকট ‘পিংকু-টিংকু’।​ টেস্ট শুরুর আগে নামবে আট প্যারা ট্রুপার। ভারতীয় বিমানবাহিনী এটা তত্ত্বাবধান করবে। আটজন আটটি গোলাপি বল নিয়ে নামবে। তাঁরা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্র্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে হস্তান্তর করবেন গোলাপি বল।​
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত ইডেন গার্ডেন্স
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী দুই দলের অধিনায়ককে গোলাপি বল হস্তান্তর করবেন।​ টস করতে সোনার তৈরি বিশেষ কয়েন ম্যাচ রেফারিকে হস্তান্তর করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।​ দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজাবে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।জাতীয় সংগীতের পর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বাজাবেন ইডেনের ঘণ্টা।​ এই টেস্টে উপস্থিত থাকতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ভারতের সাবেক সব অধিনায়ককে। তারা ল্যাপ অব অনার দেবেন, প্রদক্ষিণ করবেন পুরো মাঠ। এটা হবে চা বিরতিতে।​ অন্য খেলার ভারতীয় কিংবদন্তি যেমনঃ বক্সিংয়ে মেরি কম, টেনিসের সানিয়া মির্জা, শুটিংয়ে অভিনব বিন্দ্রাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।​ আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ২০০০ সালের নভেম্বরে অভিষেক টেস্ট খেলা বাংলাদেশ দলের সব খেলোয়াড়কে।​ মাঠে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন ২০০ নৃত্য শিল্পী।

ছবি সংগৃহিত

Comments

KOLKATA WEATHER
Pati Patni Aur Woh Panipat সাগরদ্বীপে যকেরধন সূর্য পৃথিবীর চারিদিকে ঘোরে 3 Knives Out Hotel Mumbai Bohomaan X Ray: The Inner Image Commando 3
What's New Life