Latest News

মেক্সিকোর মাদক সম্রাট এল চাপো গুজম্যানের ছেলে ওভিদিও গুজম্যান লোপেজকে গ্রেফতার What's New Life গোটা রাজ্যে স্কুল, কলেজ, বিশ্ব বিদ্যালয়ে মোবাইলের ব্যবহার নিষিদ্ধ করলো যোগী সরকার What's New Life অসুস্থ অমিতাভ, ভর্তি মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে What's New Life পাকিস্তানকে ৪ মাস সময় দিল এফএটিএফ What's New Life ভারত-সৌদি সহযোগিতা পরিষদের বৈঠকে যোগ দিতে সৌদি সফরে যাবেন মোদি What's New Life কাবুলগামী স্পাইসজেটের যাত্রীবোঝাই বিমানকে ধাওয়া পাক যুদ্ধবিমানের What's New Life বিশ্বমানের করে গড়ে তোলা হবে বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটি What's New Life অস্ট্রেলিয়ার কোয়ান্তাস এয়ারওয়েজ পরিচালনা করবে বিশ্বের দীর্ঘতম বিরতিহীন ফ্লাইট What's New Life YOUR FAVOURITE EATERY AMINIA IS NOW AT SODEPUR TOO! What's New Life মঙ্গলের মাটিতে মটর, টমেটো ছাড়াও ৮ রকমের সব্জী উৎপাদন What's New Life

বিতর্কিত আসামি প্রত্যর্পণ বিল​ বাতিলের পরও হংকংয়ের সড়কে চলছে বিক্ষোভ

হংকংয়ে গণতন্ত্রকামীদের সরকার বিরোধী দীর্ঘ আন্দোলনের পর অবশেষে বাতিল হলো বিতর্কিত আসামি প্রত্যর্পণ বিল। যদিও এর পরও দেশটির প্রধান প্রধান সড়কে আবারও নেমেছেন গণতন্ত্রপন্থিরা।​
গত রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিক্ষোভরত গণতন্ত্রকামীরা চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির দপ্তর প্রাঙ্গণ ঘেরাও করেন। এ সময় তারা পুলিশ এবং সরকারি অফিসগুলোকে লক্ষ্য করে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করেন। যদিও পুলিশ এসে পালটা বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস এবং রঙিন গরম পানি নিক্ষেপ করে। পরবর্তীতে স্থানীয় গণতন্ত্রকামীরা হংকংকে স্বাধীন করার জন্য ব্রিটেনের সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন।​
পুলিশের পাঠানো বিবৃতির বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘বিবিসি নিউজ’ জানায়, বিক্ষোভকারীরা স্বাধীনতার দাবিতে হারকোর্ট সড়ক দখল করেছে। এমনকি তারা এরই মধ্যে বেশ কিছু সরকারি অফিস ভাঙচুর করছেন; তাছাড়া পুলিশের ওপরও পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়। পরবর্তীতে চীনের জাতীয় পতাকাও পুড়িয়ে ফেলেন সড়কে আগতরা।​
এর আগে হংকংয়ে অবস্থিত ব্রিটেনের কনস্যুলেট ভবনের প্রাঙ্গণেও বিক্ষোভ করেছেন গণতন্ত্রপন্থিরা। এ সময় তারা চীনকে চাপ প্রয়োগের জন্য ব্রিটিশ সরকারের প্রতিও আহ্বান জানান।

বিশ্লেষকদের মতে, আসামি প্রত্যর্পণ বিল বাতিলের দাবিতে চলতি বছরের জুন মাসে সড়কে বিক্ষোভ শুরু করেন দেশটির গণতন্ত্রপন্থি হাজারো জনতা। পরবর্তীতে তাদের এই দাবি মেনে নিলেও আরও চারটি দাবি মানতে আন্দোলন অব্যাহত রাখেন তারা। মূলত এসব দিক বিবেচনায় এশিয়ার পরাশক্তি চীন নিজেদের সেনাবাহিনীকে সীমান্তে সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছে।
প্রায় ১৫০ বছর ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকদের অধীনে থাকার পর ১৯৯৭ সালের ১ জুলাই লিজ চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় অঞ্চলটি শক্তিশালী চীনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিল। ঐতিহাসিক এই দিবসটির ২২ বছর পূর্তিতে গত ১ জুলাই আন্দোলনে সড়ক অবরোধ করেন গণতন্ত্রকামী লোকজন। প্রতি বছরের এই দিনে কর্মকর্তারা এক দিকে সরকারি ভবনগুলোতে উৎসব পালন করেন আর অপর দিকে গণতন্ত্রকামীরা অবস্থান নেন রাজপথে।
দীর্ঘদিন যাবত হংকং চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হিসেবে বিবেচিত হলেও ২০৪৭ সাল থেকে অঞ্চলটিকে স্বায়ত্তশাসনের নিশ্চয়তা দেয় দেশটি। এর আগে গত মাসেও চীনপন্থি এক বিল নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছিল ইউরেশিয়ার দক্ষিণপূর্ব উপকূলের এই দেশ।​
মূলত চীন এবং তাইওয়ানে আসামি প্রত্যর্পণ সংক্রান্ত প্রস্তাবিত একটি বিলের বিপক্ষে তখন গোটা দেশে এই বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এতে আন্দোলনকারীদের মূল ক্ষোভ দাঁড়ায় চীনের সঙ্গে সমঝোতা নিয়ে।

ছবি সংগৃহিত

Comments

KOLKATA WEATHER
WAR Sye Raa Narasimha Reddy Satyanweshi Byomkesh Password Mitin Mashi Joker Gumnaami Ready or Not It: chapter two আড্ডা ভালো মেয়ে খারাপ মেয়ে পরিণীতা Section 375 Chhichhore Dream Girl The Angry Birds Movie Angel Has Fallen গোত্র
What's New Life