Latest News

ভিভিপ্যাট পরীক্ষার দাবি খারিজ করল নির্বাচন কমিশন What's New Life মৃত ব্যক্তির দেহাবশেষ থেকে জৈবসার উৎপাদন প্রক্রিয়াকে বৈধতা দিল ওয়াশিংটন What's New Life শরীরের বিভিন্ন সমস্যার প্রতিরোধে নিমপাতার ব্যবহার What's New Life ইন্দোনেশিয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষে নিহত ৬ What's New Life অ্যাপলের পণ্য বর্জনের ডাক চীনে What's New Life সার্বিকভাবে চাঙ্গা হতে শুরু করেছে ভারতের অর্থনীতি What's New Life ইভিএম যাতে সুরক্ষিত থাকে তার দায় কমিশনের : প্রণব মুখোপাধ্যায় What's New Life ১ সপ্তাহের ব্যবধানে নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙলেন কামি রিতা শেরপা What's New Life জয়ের আভাস এক্সিট পোলে, সরকার গঠনের প্রস্তুতিতে এনডিএ What's New Life আগামী ৮০ বছরের মধ্যে সমুদ্র গর্ভে তলিয়ে যাবে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল What's New Life
পাকিস্তানের পর এবার মিয়ানমারে ১০টি জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস

পাকিস্তানি ভূখণ্ডের পর এবার মিয়ানমার সীমান্তে ঢুকে পৃথক হামলা চালিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কমপক্ষে ১০টি জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করা হয়েছে বলে দাবি ভারতের। কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্যের বরাতে করা প্রতিবেদনে এই হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম নিউজ ১৮। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের বালাকোটে বিমান হামলা ইস্যুতে দেশ জুড়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই এবার মিয়ানমারে এক বড়সড় সামরিক অভিযান চালাল ভারতীয় সেনারা। সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘অপারেশন সানরাইস’ নামে এই অভিযানে ভারতীয় সেনাদের সহায়তার জন্য ছিল মিয়ানমারের সেনা সদস্যরাও। এতে প্রথম অভিযানটি চালানো হয় গত ১৭ ফেব্রুয়ারি এবং দ্বিতীয়টি করা হয় গত ২ মার্চ। প্রায় ১০ দিন যাবত চলা এ অভিযানে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০টি জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে ভারতীয় সামরিক বাহিনীর এক কর্মকর্তা বলেন, ‘মিয়ানমারের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে আরাকান আর্মিদের তৎপরতা ক্রমশ বাড়ছিল। এটি মায়ানমারের একটি সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন। তারা মিজোরাম এবং মায়ানমার সীমান্তের ঘাঁটি থেকেই দীর্ঘদিন যাবত এসব জঙ্গি কার্যকলাপ চালাচ্ছিল। মূলত তাদের নিধনের জন্যই আমরা সে দেশের সেনাদের সঙ্গে নিয়ে এই বিশেষ অভিযানটি চালিয়েছি।’

সামরিক বাহিনীর এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘দুই পর্যায়ে সেই অভিযানের প্রথম পর্যায়ের লক্ষ্য ছিল মায়ানমার-মিজোরাম সীমান্তে জঙ্গি ঘাঁটিগুলোকে ধ্বংস করা। আর দ্বিতীয় পর্যায়ের অভিযানের লক্ষ্য ছিল নাগা জঙ্গি গোষ্ঠী এনএসসিএনের (খাপলাং) ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া।’
অপরদিকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভারতীয় স্পেশাল ফোর্স এবং আসাম রাইফেলসের সঙ্গে মায়ানমার সেনারাও এই অভিযানে অংশ নেয়। এ সময় হেলিকপ্টার এবং ড্রোন ব্যবহারের মাধ্যমে জঙ্গিদের গতিবিধি নজর রাখা হচ্ছিল। মূলত এতে তাদের যাবতীয় তথ্য সংগ্রহের পরপরই এ হামলাটি চালানো হয়। উল্লেখ্য, চীন সংলগ্ন সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত মিয়ানমারের কাচিন প্রদেশে গত দু’বছর যাবত আরাকান আর্মি সদস্যদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে কাচিন ইনডিপেনডেন্স আর্মি। এতে প্রায় ৩ হাজার ক্যাডারকে বিভিন্ন ধাপে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। মূলত এর পর তাদের পাঠিয়ে দেওয়া হয় মায়ানমারের দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তে। আর সেখান থেকেই তারা এতদিন ভারতে জঙ্গি কার্যকলাপ চালাচ্ছিল।

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Vinci Da The Curse Of The Weeping Woman Dumbo Jyeshthoputro Avengers: Endgame Student Of The Year 2 Blank Chhota Bheem: Kung Fu Dhamaka Konttho Pokemon Detective Pikachu
What's New Life
Inline
Inline