Latest News

Akshara Centre in collaboration with David & Goliath Films & Swayam launches the Bengali Version of the Video #LockdownOnDomesticViolence What's New Life আফ্রিকা থেকে ধেয়ে আসছে আরেকটি পঙ্গপালের একটি বিশাল ঝাঁক What's New Life প্রবল বর্ষণের ফলে আকস্মিক বন্যা মেঘালয়ে What's New Life রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৩,৮১৬ দেশে করোনা আক্রান্ত ১,৩৮,৮৪৫ জন What's New Life করোনা🦠 সন্দেহে মৃত্যু গড়ফা থানার কনস্টেবলের What's New Life Jamai Sasthi offerings by Rollick 🍧 What's New Life সাপ্তাহিক লগ্নফল - ২৪ থেকে ৩০ মে What's New Life দেশজুড়ে আবারো একদিনে রেকর্ড সংখ্যক করোনা🦠 আক্রান্ত What's New Life আম্ফানের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গ পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি What's New Life 🍽️ SEVEN REASONS TO ORDER FROM AMINIA DURING THIS LOCKDOWN PERIOD What's New Life

সোমবার থেকে চালু হচ্ছে সীমিত পরিসরে বাস পরিবহন

করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে লকডাউন এবং রোগী শনাক্ত ভাবনায় গোটা পশ্চিমবঙ্গকে তিনভাগে বিভক্ত করেছে রাজ্য সরকার। এরমধ্যে আগামী ০৪ মে (সোমবার) থেকে গ্রিন জোন খুলে দেওয়ার অর্থাৎ এখানের বেশকিছু দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। এছাড়া চালু হচ্ছে সীমিত পরিসরে বাস পরিবহন সেবাও।
বুধবার (২৯ এপ্রিল) রাজ্যের প্রশাসনিক ভবন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি নিজেই।
পশ্চিমবঙ্গের তিনটি ভাগ বা জোনের মধ্যে রেড জোন একটি। যেখানে কোভিড-১৯ আক্রান্ত মৃত্যু বেশি। আবার আক্রান্তও বেশি। আরেকটি অরেঞ্জ জোন। অর্থাৎ এখানে করোনা ভাইরাসের সন্ধান মিলেছে। কিন্তু কম। এছাড়া আরেকটি ভাগ গ্রিন জোন, যেখানে এখনও করোনা শনাক্ত হয়। একটি আক্রান্তও নেই।
অবশ্য এ হিসেবে কলকাতায় লকডাউন বহাল থাকবে বলেই বোঝা যাচ্ছে। কারণ রাজ্যে রেড জোন হিসেবে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা ও পুর্ব মেদিনীপুর জেলা চিহ্নিত করা হয়েছে। আর গ্রিন জোনে আছে বাকুড়া, ঝাড়গ্রাম, মালদহ, দক্ষিণ ও উত্তর দিনাজপুর, পুরুলিয়া, বীরভুম, আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার।
গ্রিন জোনভুক্ত এলাকায় চালু হচ্ছে বাস পরিবহন সেবাও। অবশ্য ২০ জনের বেশি তোলা যাবে না বাসে। এছাড়া এসব এলাকায় বেশকিছু দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পাশাপাশি কলকাতার জেলার কয়েকটি গ্রিন ও অরেঞ্জ জোনে ট্য়াক্সি পরিষেবা চালুর কথাও ঘোষণা করেছে মমতা সরকার।

এছাড়া রাজ্যে লকডাউনও কিছু শিথিল করা হচ্ছে ০৪ মে থেকে। সেখানে বলা হয়েছে, পাড়ার ছোট ছোট দোকান খুলবে। স্টেশনারি দোকান, বইয়ের দোকান, রঙের দোকান খুলবে। খুলবে ইলেকট্রনিক্সের দোকান, মোবাইলের দোকান, ব্য়াটারি চার্জের দোকানও। হার্ডওয়্যারের দোকান খুলবে। খুলবে লন্ড্রি। এমনকি খোলা হচ্ছে চা ও পানের দোকানও। তবে চায়ের দোকানে আড্ডা মারা যাবে না। চা কিনে খেতে হবে বাসায়। তবে এসব বিষয়ে পুলিশ অঞ্চল বুঝে সিদ্ধান্ত নেবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া গ্রিন জোনভুক্ত এলাকায় কারখানা খুলবে। তবে কারখানাগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে শ্রমিকদের রাখার ব্যবস্থা করতে হবে কারখানাতেই। তবেই খোলা যাবে কারখানা। সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। তবে গ্রিন জোনভুক্ত এলাকার মধ্যেই চলাচল করবে বাস। এলাকার বাইরে যাওয়া যাবে না।

এদিকে, এখনই রাজ্যে কোথাও খুলবে না ফুটপাতের মার্কেট, মার্কেট কমপ্লেক্সে বা শপিংমল। সেলুন খোলার ব্য়াপারেও পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জানানো হয়েছে।

Facebook Comments

KOLKATA WEATHER
Thappad Shubh Mangal jyada Saavdhan Bhoot Love Aaj Kal Porshu Love Aaj Kal (लव आज कल 2) Professor Shonku Bombshell The Grudge অসুর রবিবার Sanjhbati
What's New Life