Latest News

প্রয়াত বর্ষীয়ান অভিনেতা জগদীপ জাফরী What's New Life কাশ্মীরে জঙ্গী হামলায় পরিবার সহ নিহত বিজেপি নেতা ওয়াসিম বারি What's New Life কাল থেকে কড়া লকডাউন, দেখে নিন কলকাতার কন্টেনমেন্ট জোনের তালিকা What's New Life গান্ধী পরিবারের তিনটি ট্রাস্টের তদন্তের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কমিটি গঠন What's New Life দেশজুড়ে করোনায়🦠আক্রান্ত বেড়ে ৭,৪২,৪১৭ মৃত ২০,৬৪২ What's New Life এনকাউন্টারে খতম গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে ঘনিষ্ঠ What's New Life 🇺🇸 আনুষ্ঠানিক ভাবে ডব্লিউএইচও সঙ্গ ছাড়লো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র What's New Life 🏏 মহারাজের ৪৮শে পা What's New Life প্রয়াত বর্ষীয়ান অভিনেতা অরুণ গুহঠাকুরতা What's New Life ৩০% কমিয়ে দেওয়া হল নবম-দ্বাদশ শ্রেণির সিবিএসই-র পাঠক্রম What's New Life

🇵🇰 পাকিস্তানের বাজারে বিক্রি হচ্ছে পঙ্গপাল

গ্রীষ্মকালীন ফসলগুলো ধ্বংস হয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে মারাত্মক এ সংকটের মধ্যেও নতুন সমাধান খুঁজে পেয়েছেন পাকিস্তানের কৃষকরা। পাকিস্তানের স্থানীয় এক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের ওকরা জেলার কৃষকরা শুধু পঙ্গপালকে দমনই নয়, তা বিক্রি করে আয়েরও সংস্থান করেছেন। ক্ষুদ্র এ পতঙ্গ হয়ে উঠেছে মুরগির উচ্চ প্রোটিন যুক্ত খাবার। তাই বাজারে বিক্রি হচ্ছে সেসব। ওকারা জেলায় উদ্ভাবনী এ প্রকল্পের প্রবক্তা পাকিস্তানের জাতীয় খাদ্য নিরাপত্তা ও গবেষণা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মোহাম্মদ খুরশিদ ও পাকিস্তান কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের জৈবপ্রযুক্তিবিদ জোহর আলী। তার দেখানো পথে হেঁটে পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রণের নতুন দিশা খুঁজে পেয়েছেন কৃষকরা। আলী বলেন, ‘যখন শুরু করলাম তখন অনেকেই উপহাস করেছে। কারণ পঙ্গপাল বিক্রি করবে এ চিন্তা তখন পর্যন্ত কেউ করেনি।’ খুরশিদ বলেন, ‘ইয়েমেনের থেকে উদ্বুদ্ধ হয়েছি আমরা। দুর্ভিক্ষ কবলিত দেশটিতে ২০১৯ সালে শ্লোগান উঠেছিল, ‘ফসল খাওয়ার আগে, পঙ্গপালকে খেয়ে ফেল।’ প্রথমে তারা পাকিস্তানের জনবহুল ওকারা জেলায় তিন দিনের পাইলট প্রকল্প গ্রহণ করে। প্রকল্পটি ছিল দেপালপুরে পেপলি পাহার বনে। গত ফেব্রুয়ারি থেকেই সেখানে বিপুল সংখ্যক পঙ্গপাল আসতে থাকে। আর ওই বন নির্বাচন করা হয়েছে কারণ ওখানে পঙ্গপালের ওপর কীটনাশক ব্যবহার করা হয়নি। তারপর তারা একটি শ্লোগান ছড়িয়ে দেন। সেটি হলো, ‘পঙ্গপাল ধর, আয় কর এবং ফসল বাঁচাও’। প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের প্রতি কেজি পঙ্গপালের বিনিময়ে পাকিস্তানি মুদ্রায় ২০ রুপি করে দেয়া হয়। এটা দেখে সেখানকার কৃষকরা উদ্ধুদ্ধ হয়ে পঙ্গপাল ধরতে শুরু করেন।

‘পঙ্গপাল সাধারণত দিনের আলোতে উড়ে বেড়ায়, রাতে ওরা গাছপালায় বা উন্মুক্ত ময়দানে বিশ্রাম নেয়। তখন একদম নড়াচড়া করে না। মৃতের মতো পড়ে থাকে। ওই সময় পঙ্গপাল ধরা অনেক সহজ। আমরা কৃষকদের সেই বুদ্ধি দিলাম। তাতেই কাজ হলো।’ তিনি আরও জানান, ‘কৃষকরা প্রথম রাতেই ৭ টন পঙ্গপাল ধরেছে। আমরা সেগুলো পার্শ্ববর্তী মুরগির খাবার তৈরির কারখানায় বিক্রি করেছি। ওই এক রাত কাজ করে অনেক কৃষক ২০ হাজার রুপিও আয় করেছেন।’ এছাড়া যারাই এই কাজটি করছেন তাদের আয় হচ্ছে বেশ ভালোই।

Facebook Comments

KOLKATA WEATHER
Thappad Shubh Mangal jyada Saavdhan Bhoot Love Aaj Kal Porshu Love Aaj Kal (लव आज कल 2) Professor Shonku Bombshell The Grudge অসুর রবিবার Sanjhbati
What's New Life